শনিবার, ২১ জুন, ২০১৪

চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরে ফ্রিল্যান্সার টু এন্টারপ্রিউনার কর্মসূচিরউদ্বোধন ও ভিডিও কনফারেন্সেবক্তারা

চুয়াডাঙ্গায় ফ্রিল্যান্সার টু এন্টারপ্রিউনার কর্মসূচির উদ্বোধন ও ভিডিও কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল রোববার বেলা ১২টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঢাকার সাথে একযোগে কর্মসূচির লোগো উন্মোচন করেন জেলা প্রশাসক মো. দেলোয়ার হোসাইন।

এসময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মল্লিক সাঈদ মাহবুব, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আনজুমান আরা, নবাগত অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আবু সাঈদ, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল আমিনসহ প্রশাসন, ব্যাংক, এনজিও ও সাংবাদিক প্রতিনিধি এবং ইউনিয়ন তথ্যসেবা কেন্দ্রের উদ্যোক্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ডাক,টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের তথ্য এবং যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব নজরুল ইসলাম খান চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক মো. দেলোয়ার হোসাইনের সাথে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সার টু এন্টারপ্রিউনার কর্মসূচির বিষয়ে সরাসরি কথা বলেন। জেলা প্রশাসক এসময় সচিব নজরুল ইসলাম খানকে অবহিত করেন প্রতিটি উপজেলায় পাঁচজন করে ফ্রিল্যান্সার টু এন্টারপ্রিউনার গড়ে তোলা হবে। এ কাজে চুয়াডাঙ্গার তিনটি ব্যাংক তাদেরকে লোন দিয়ে সহযোগিতা করবে।এসময় জেলা প্রশাসক মো. দেলোয়ার হোসাইন তার বক্তৃতায় বলেন, উদ্যোক্তাদের কোয়ালিটি ও সময় মেনটেন করতে হবে। রাতের বেলায় কাজ করা ও সরকারি কর্মকর্তারাও একাজে অংশ নিতে পারবেন।

মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, অন লাইনে কাজের মাধ্যমে যারা বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা আয় করে দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন সেই ফ্রিল্যান্সারদের সামাজিক স্বীকৃতি নেই। প্রচলিত সব পেশার স্বীকৃতি থাকলেও ফ্রিল্যান্সরদের সরকারি কোনো সনদ নেই। তথ্য প্রযুক্তির জগতে ফ্রিল্যান্সারদের ব্যাপক পরিচিতি ও সম্মান রয়েছে।কিন্তু দেশের বেশিরভাগ মানুষ তাদের সম্পর্কে অবগত নয়। তাই ফ্রিল্যান্সার হিসেবে পরিচয় দিয়ে অনেক সময় তারা বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখোমখি হচ্ছেন। সামাজিক স্বীকৃতি প্রদানের মধ্যদিয়ে এ পেশাকে প্রত্যন্ত অঞ্চলে আরো ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে দেয়ার দাবি জানান তারা। গতকাল রোববার দুপুরে মেহেরপুর জেলা প্রশাসক সম্মেলনকক্ষে ফ্রিল্যান্সার টু ইন্টারপ্রিউনিয়ার লোগো উন্মেচন অনুষ্ঠানে জেলার ফ্রিল্যান্সারদের পক্ষ থেকে ওই দাবি তোলেন দেশের স্বনামধন্য ফ্রিল্যান্সার ও উদ্যোক্তা সদর উপজেলার চাঁদবিল গ্রামের মুন্সি জাহাঙ্গীর জিন্নাত হিরক। আইসিটি মন্ত্রণালয়সহ সরকারের উচ্চ পর্যায়ে এ দাবি বাস্তবায়নে লক্ষ্যে সুপারিশ করা হবে বলে আশ্বস্থ করেন জেলা প্রশাসক।

সারাদেশের ন্যায় মেহেরপুরেও ফ্রিল্যান্সার টু এন্টারপ্রিউনিয়ার লোগো উন্মোচন করেন জেলা প্রশাসক মাহমুদ হোসেন ও সাংবাদিক রফিকুল আলম। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের বিষয়বস্তু নিয়ে সরাসরি আলোকপাত করেন আইসিটি মন্ত্রণালয়ের সচিব এনআই খান। সরকারি কর্মকর্তা, সাংবাদিকসহ জেলার বিভিন্ন প্রান্তে কর্মরত ফ্রিল্যান্সররা অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন। বিস্তারিতঃ দৈনিক মাথাভাঙ্গা


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Designed By Blogger Templates | Published by Responsive blogger Templates